কেমন হলো মারভেলের নতুন সিনেমা ‘ব্ল্যাক প্যান্থার’?

by · Published · Updated

সব মিলিয়ে, মারভেল ফ্যানেদের জন্য ব্ল্যাক প্যান্থার সিনেমাটি অবশ্যই মাস্ট ওয়াচ। তবে কিছু জায়গায় ভিএফএক্সের কাজগুলো সাধারণ বলে মনে হয়েছে। 

http://stdermatology.com/our-providers/additional-providers/38-local-dermatology-practice-to-co-sponsor-annual-charity-golf-tournament http://abia.org.uk/wp-content/uploads/partner-solitudo.png সদ্য মুক্তি পেয়েছে মারভেল ইউনিভার্সের সাম্প্রতিকতম ছবি ‘ব্ল্যাক প্যান্থার’। সিনেমাটা কেমন হলো, বলছি। তবে এই লেখা শুরু করার আগে ব্ল্যাক প্যান্থার চরিত্রটি নিয়ে কিছু বলে রাখা ভালো। আফ্রিকার একটি কাল্পনিক দেশ হলো ওয়াকান্ডা, যাদের অস্তিত্ব সম্বন্ধে প্রথম বিশ্ব আজ অবধি ওয়াকিবহাল নয়। সায়েন্স এবং টেকনোলজিতে অত্যন্ত এগিয়ে থাকা এই দেশের উন্নতির প্রধান কারণ ভাইব্রেনিয়াম নামক একটি ধাতু, যা সারা পৃথিবীতে শুধু এই দেশেই পাওয়া যায়। ব্ল্যাক প্যান্থার হলেন এই দেশের রাজা এবং এদের সমস্তরকম সম্পদের রক্ষক। এখানে বলে রাখা ভালো যে ব্ল্যাক প্যান্থার কোনো আলাদা মানুষ নন, এটি একটি বিশেষ পদমর্যাদা যেটি ওয়াকান্ডার বর্তমান রাজাকে দেওয়া হয়ে থাকে।

http://dentland.hu/?cikk=10 এর আগে মারভেলেরই অন্য একটি ছবি ‘ক্যাপ্টেন আমেরিকা-সিভিল ওয়ার’এ আমরা প্রথমবারের জন্য দেখেছিলাম ব্ল্যাক প্যান্থারকে। ভাইব্রেনিয়াম স্যুট পরিহিত, ওয়াকান্ডার রাজা হিসাবে স্যাডউইক বোসম্যানের ব্ল্যাক প্যান্থারকে প্রথম আবির্ভাবেই দর্শকদের ভালো লেগে গিয়েছিল। অগত্যা বছর দুয়েকের মধ্যেই এই চরিত্রটির ‘সোলো’ সিনেমায় সুযোগ পাওয়া, এবং সেটাও এমন একটা সময়ে যখন বিশ্বজুড়ে মারভেল ফ্যানেরা ‘ইনফিনিটি ওয়ার’ নিয়ে আলোচনা বা নিজস্ব থিয়োরিতে ব্যস্ত। ফলে এটা স্পষ্টই বোঝা যাচ্ছে যে ব্ল্যাক প্যান্থার চরিত্রটি আগামী দিনে মারভেলের কাছে কতটা গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠতে চলেছে।

Phentermine Free Fedex Shipping ছবির প্রাথমিক গল্প শুরু হচ্ছে সিভিল ওয়ারের পর থেকে। পিতার মৃত্যুর পর ওয়াকান্ডার পরবর্তী রাজা হিসাবে অভিষেক হয় টি-চালা বা ব্ল্যাক প্যান্থারের (স্যাডউইক বোসম্যান)। সিংহাসনে বসেই তিনি খবর পান লন্ডনের একটি মিউজিয়াম থেকে একটি প্রাচীন ভাইব্রেনিয়ামের অস্ত্র চুরি হয়েছে, যেটি নিয়েছে ওয়াকান্ডারই পুরোনো শত্রু জোনাথান ক্ল (অ্যান্ডি সারকিস)। ক্ল’কে ধরতে গিয়ে টি-চালা আবিষ্কার করে তার খুড়তুতো ভাই কিলমোংগারকে (মাইকেল জর্ডন)। এরিক স্টিভেন্স বা কিলমোংগার নিজের পিতার হত্যার প্রতিশোধ নিয়ে সিংহাসনে বসতে চায়। এদিকে সে ওয়াকান্ডার রাজা হলে সারা দেশের ভাইব্রেনিয়াম ছড়িয়ে পড়বে অন্যান্য মহাদেশে, বিশ্বজুড়ে শুরু হয়ে যাবে এক অসম যুদ্ধ। টি-চালা কি পারবে এই যুদ্ধ থামাতে আর নিজের সিংহাসন পুনরুদ্ধার করতে ? সব প্রশ্নের উত্তর পাওয়া যায় দু’ঘন্টার সিনেমার শেষে।

Buying Phentermine Online Cheap এবার একটু অন্য প্রসঙ্গে আসা যাক। সিনেমার অনেক চরিত্রই যেহেতু সরাসরি ‘ইনফিনিটি ওয়ার’ সিনেমার সাথে যুক্ত, তাই তাদের কিছুটা সংক্ষিপ্ত বিবরণ দিয়ে রাখাটা দরকার। স্যাডউইক বোসম্যানের ব্ল্যাক প্যান্থার নিয়ে নতুন করে কিছু বলার নেই, তবে অনেক জায়গাতেই চরিত্রটিকে কিছুটা ফিকে লেগেছে। অর্থাৎ ইচ্ছাকৃত ভাবেই আসন্ন সিনেমার আগে চরিত্রটিকে পুরোপুরি রিভিল করা হয়নি। বরং নেগেটিভ রোলে অনেক বেশি সপ্রতিভ লেগেছে মাইকেল জর্ডনের কিলমোংগারকে। এছাড়াও ওয়াকান্ডার সেনাবাহিনী প্রধান ওকোয়ে (ডানাই গুরিয়েরা) চরিত্রটি ভীষণ রকমের ভালো। তবে আলাদা করে বলতে হয় টি-চালার বোন সুরির চরিত্রে লেতিতা রাইটের কথা। সুরি চরিত্রটি একাধারে ডাক্তারি, বিজ্ঞান এবং সামরিক বিভাগে দক্ষ, যা তাকে অন্যান্য যেকোনো মারভেল চরিত্র থেকে আলাদা করে। এই ছবিতেই সুরির বৈজ্ঞানিক দক্ষতার যা প্রমাণ পাওয়া গিয়েছে তাতে ইনফিনিটি ওয়ারে পরোক্ষভাবে সুরির যে একটা বড় ভূমিকা থাকতে চলেছে, তাতে সন্দেহ নেই।

Buy Adipex তবে দু:খ একটাই। সেই ‘থর-রাগনারোক’এর মুক্তির পর থেকেই দর্শকমহলের যাবতীয় আগ্রহ ছিল ‘সোল স্টোন’কে ঘিরে। বেশ কিছু থিওরিতে মোটামুটি পরিষ্কার হয়ে গিয়েছিল যে সোল স্টোন ওয়াকান্ডাতেই কোথাও আছে। কিন্তু দু:খিত, শেষ ইনফিনিটি স্টোনের দেখা এ ছবিতেও পাওয়া গেল না ! আবার ইনফিনিটি ওয়ারের আগে এটাই ছিল শেষ সিনেমা, অর্থাৎ সোল স্টোনের দেখা আমরা পেতে চলেছি একেবারে সেই এপ্রিল মাসে গিয়ে, ইনফিনিটি ওয়ার সিনেমায়।

Phentermine Real Online Buy Adipex From India তাহলে সব মিলিয়ে, মারভেল ফ্যানেদের জন্য ব্ল্যাক প্যান্থার সিনেমাটি অবশ্যই মাস্ট ওয়াচ। তবে কিছু জায়গায় ভিএফএক্সের কাজগুলো সাধারণ বলে মনে হয়েছে। ওটুকু বাদ দিলে রায়ান কুগলারের ‘ব্ল্যাক প্যান্থার’ আপনার ভালোই লাগবে, এমনটা আশা করাই যায়।

Share this.